নুরকে চ্যালেঞ্জ সেই ছাত্রীর (ভিডিও টি দেখুন )

Loading...

ধর্ষণ মামলা নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বক্তব্যকে চ্যালেঞ্জ করেছেন মামলার বাদী ঢাবির সেই শিক্ষার্থী।




নুরুল হক নুর সামাজিকমাধ্যমে এক লাইভ ভিডিওতে দাবি করেন, টাকার বিনিময়ে ছাত্র অধিকার পরিষদকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে ওই শিক্ষার্থী এ মামলা করেছেন। নুরের এমন বক্তব্যের জবাবে তিনিও সামাজিকমাধ্যমে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন। নুর তার অভিযোগ প্রমাণ না করতে পারলে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন ওই ছাত্রী।




সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে ঢাবি ছাত্রী বলেন, নুরুল হক নুর একটা লাইভে বলেছেন যে, টাকার বিনিময়ে কোনো এক সংগঠনের প্রশংসা পাওয়ার জন্য আমি এটা করেছি। উনি যদি এটা প্রমাণ করতে পারেন যে টাকার বিনিময়ে আমি এটা করেছি, তো তিনি যেন একটা প্রমাণ করে দেন। আর যদি উনি এটা প্রমাণ করতে না পারেন যে আমি টাকার বিনিময়ে আমি মামলা করে ছাত্র অধিকার পরিষদকে প্রশ্নবিদ্ধ করছি, তাহলে আমি তার ব্যাপারে ব্যবস্থা নেবো।




ভিডিওটি দেখুন

তিনি আরও বলেন, ‘আর একটা ব্যাপার হচ্ছে যে, এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ বা ঢাকা ইউনিভার্সিটি বা এমন কোনো জায়গায় এমন কোনো সংস্কৃতি গড়ে ওঠেনি যে, একটা মেয়ে তার সম্ভ্রমটাকে পুঁজি করে একটা মিথ্যা মামলা করবে। আমাকে নিয়ে যেরকমটা বলা হচ্ছে তার কোনো ভিত্তি নাই আসলে। আমি ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে পড়ি, কারো প্ররোচনায় বা টাকা নিয়ে আমি এমনটা করছি, সেটার কোনো ভিত্তি নাই।




তিনি আরো বলেন, একটা খবর প্রকাশ পেয়েছে যে ‘ভিপি নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা ঢাবি শিক্ষার্থীর’। এই শিরোনামে একটা নিউজ হয়। আমি কিন্তু আমার এজাহারের কোথাও সেটা লিখিনি যে ভিপি নুর হচ্ছে ধর্ষক। তবে ধর্ষণে সহায়তা বলতে আমি বুঝিয়েছি, বিচারপ্রাপ্তিতে সে (ভিপি নুর) বাধা দিয়েছে। আর যে অপরাধী, একজন ধর্ষককে সে আশ্রয় দিয়েছে। আমি ভিপি নুরের ব্যাপারে এভাবে বলেছি।

এর আগে, গত রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক শিক্ষার্থী লালবাগ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন। মামলায় মোট ছয়জনকে আসামি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ধর্ষণে সহযোগী হিসেবে নুরুল হক নূরের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।




পরে সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) শাহবাগের বিক্ষোভ থেকে নূরসহ সাতজনকে আটক করে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে কিছুক্ষণ পর নূরকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করানো হয়। পরে সেখান থেকে নুরুল হক নূরকে ছেড়ে দেয়া হয়।


ভিডিওটি দেখুন

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন