উদ্ধা’রকারী বাহিনী নিয়ে লেবাননে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট!

Loading...

ভয়া’বহ বি’স্ফো’রণে বিধ্ব’স্ত হয়ে পড়া লেবাননের রাজধানী বৈ’রুত সফর করেছেন ফ্রান্সের প্রেসি’ডেন্ট এমা’নুয়েল ম্যা’ক্রোঁ। বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) এই সফরে তিনি দেশটিকে সহা’য়তার প্রতি’শ্রুতি দিয়েছেন।

ডাক দিয়েছেন সংস্কা’রের। টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘লেবানন একা নয়।’ তবে ম্যা’ক্রোঁ সতর্ক করে দিয়ে বলেন, রাজ’নৈতিক অস্থি’রতায় আ’ক্রান্ত লেবানন গভীর অর্থ’নৈতিক সংকটে রয়েছে আর

জ’রুরি ভি’ত্তিতে দেশটিতে সংস্কা’র আনা না হলে এই সংক’ট আরও তীব্র হতে পারে। ফ’রাসি বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতি’বেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

গত মঙ্গ’লবার (৪ আগস্ট) দুই দ’ফায় ভ’য়াবহ বি’স্ফো’রণে কেঁ’পে ওঠে লেবা’ননের রাজধানী বৈ’রুত। বি’স্ফো’রণ এতই শক্তি’শালী ছিল যে ২৪০ কিলোমিটার দূরে

সাই’প্রাস থেকেও কম্পন অনু’ভূত হয়েছে। এই ধ্বং’সলী’লায় নি’হতের সংখ্যা বেড়ে অ’ন্তত ১৩৭ জনে দাঁড়িয়েছে। আ’হত হয়েছেন আরও প্রায় ৫ হাজার। ক্ষ’তি হয়েছে শত শত কোটি ডলারের।

লেবানন বলছে, গু’দামে মজু’ত থাকা রাসায়’নিক পদার্থ ‘অ্যামো’নিয়াম নাই’ট্রেট’ থেকেই বি’স্ফো’রণ ঘটেছে। তবে এই ঘট’নার পর থেকেই ক্ষো’ভে ফুঁ’সছে সেখা’নকার বাসি’ন্দারা।

এই বিপ’র্যয়ের জন্য রাষ্ট্রী’য় অব্য’বস্থাপ’নাকেই দা’য়ী করছেন তারা। এমন পরিস্থি’তিতে প্র’থম বিদে’শি রাষ্ট্র’প্রধান হি’সেবে বৈ’রুতে পৌঁ’ছান ফ্রা’ন্সের প্রেসি’ডেন্ট।

ভিডিওটি দেখুন

বৃহস্প’তিবার বৈ’রুত পৌঁ’ছে বি’স্ফো’রণস্থল পরিদ’র্শন করেন ফ্রা’ন্সের প্রে’সিডেন্ট এমা’নুয়েল ম্যা’ক্রোঁ। সাগ’রপাড়ে’র জায়’গাটি বর্ত’মানে ধ্বংস’স্তু’পে প’রিণত হয়েছে।

বি’স্ফোর’ণে তৈ’রি হওয়া ১৪০ মিটা’রের বিশা’ল গর্তটি সা’গরের পা’নিতে পূ’র্ণ হয়ে গেছে।

ফ্রা’ন্সের প্রেসি’ডেন্ট বি’স্ফো’রণে ধ্বং’সস্তু’পে পরি’ণত হওয়া একটি ফা’র্মেসি পরিদ’র্শনে গেলে বাই’রে সমবেত হ’য় ক্ষু’ব্ধ বাসি’ন্দারা।

এএফপি জানিয়েছে, নিজ দেশের নেতৃ’ত্বকে ‘সন্ত্রা’সী’ আ’খ্যা দিয়ে ‘শো’ষণ অবসা’নের’ দা’বিতে স্লো’গান দেয় তারা।

এদিকে বৈরু’তে পৌঁছে উ’দ্ধার তৎপ’রতা শু’রু করেছে ফরা’সি উদ্ধা’রকা’রীরা। ভ্রাম্য’মাণ হাসপাতাল, চিকিৎসা সা’মগ্রী এবং বিশেষ’জ্ঞদের স’মন্বয়ে ফ’রাসি

উদ্ধা’র’কা’রীরা একটি ভে’ঙে পড়া ভবনে আ’টকে পড়া বেশ কয়ে’কজনকে জী’বিত উদ্ধা’রের চে’ষ্টা চালিয়ে যা’চ্ছেন।

ওই স্থান পরি’দর্শনে গেলে ফ্রা’ন্সের প্রেসি’ডে’ন্টকে জানানো হয় তাদের উদ্ধা’রের ভালো সম্ভাবনা রয়েছে।

বৈরু’তের গভর্ন’রের প্রাথমিক হিসাবে বি’স্ফো’ণের কারণে প্রায় তিন হাজার মানুষ সাময়িকভাবে আশ্র’য়হীন হয়েছে। এসব মানুষের পুনরায় আশ্র’য়ের ব্যবস্থা করতে ইতোমধ্যে ঋণ জর্জরিত দেশটির অতিরিক্ত তিনশ’ কোটি ডলার ব্যয় হবে বলে জানান তিনি।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন