পেটের দায়ে পাথর ভা’ঙার কাজ করছেন এই ক্রিকেটার!!

Loading...

করোনাভাইরাস মহামা’রী মানবজাতির জন্য বড় অভি’শাপ হয়ে এসেছে। কেউ হা’রাচ্ছেন প্রিয়জন, কেউবা জীবিকা। করোনা পথে নামিয়ে দিয়েছে অনেককে। পেটের দা’য়ে এখন তারা যে যা পারছেন করছেন। ভারতের হুইলচেয়ার দলের সাবেক অধিনায়ক রাজেন্দ্র সিং ধামি বেছে নিয়েছেন দিনমজুরের কাজ।

উত্তরখণ্ডের পিথোরাগড় জেলায় ধামির বাড়ি। তার শরীরের ৯০ শতাংশই প্যারালাইসিসের কারণে অক্ষম। পেটের দায়ে স্থানীয় একটি উন্নয়ন প্রকল্পে তিনি পাথর ভা’ঙার কাজ নিয়েছেন।

সংবাদমাধ্যম আইএনএসকে এই ক্রিকেটার বলেন, ‘মার্চে কোভিড-১৯ লকাডাউন কার্যকর হওয়ার পর আমি রুদ্রপুরে অনুশীলন করছিলাম। এরপর নিজ গ্রাম রায়কোটে ফিরে আসি। ভেবেছিলাম লকডাউনটা অল্প কদিনের জন্য।

ভিডিওটি দেখুন

কিন্তু এটা দীর্ঘ হয়। তখন থেকেই আমার পরিবারে সমস্যার সূত্রপাত। আমার এক ভাই গুটরাজের একটি হোটেলে কাজ করতো। লকডাউনের কারণে তাকেও বাড়িতে ফিরে আসতে হয়। আমার ষাটোর্ধ্ব বয়সী বাবার পক্ষে দিনমজুরের কাজ করা সম্ভব নয়। এ কারণেই আমি কাজটা নিয়েছি।’

ভারতীয় হুইলচেয়ার টিমের হয়ে ১০-১৫টি ম্যাচ খেলা ধামি সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন, ‘একটা টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা ছিল। করোনার কারণে সেটি স্থগিত হয়ে গেছে। আমি সরকারের কাছে আরজ করছি আমার যোগ্যতা অনুসারে একটা চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে।’

এদিকে উত্তরখণ্ড রাজ্যের পিথোরাগড় জেলা শাসক ড. বিজয় কুমার জোগদান্দে বলেছেন, জেলা ক্রীড়া অফিসারের সঙ্গে ধামির আর্থিক সমস্যার বিষয়টি আলোচনা করবেন তিনি। সাবেক এই অধিনায়ককে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন ড. বিজয়।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন