পরকীয়ার জেরে স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম!

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৫ মে, ২০২২
  • ৮৭ বার পাঠিত

মাদারীপুরের চৌরাস্তা এলাকায় পরকীয়ার জেরে লিজা আক্তার নামে এক গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে স্বামী আজমীর ঘরামীর বিরুদ্ধে।
বুধবার সকাল ৮টার দিকে মাদারীপুর পৌরসভার চৌরাস্তা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে মারাত্মকভাবে আহত লিজা আক্তারকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।

আহত লিজা আক্তার মাদারীপুর পৌরসভার সৈদারবালী এলাকার আবদুল হক মাতুব্বরের মেয়ে। এদিকে অভিযুক্ত আজমীর ঘরামী পাঁচখোলা ইউপির জাফরাবাদ এলাকার মান্নান ঘরামীর ছেলে।

ভুক্তভোগী ও স্বজনরা জানায়, ৭ বছর আগে পারিবারিক সম্মতিতে বিয়ে হয় লিজা ও আজমীর ঘরামীর। তাদের সংসারে ৫ ও ৪ বছরের দুটি শিশু সন্তান রয়েছে। বিয়ের পরে সামান্য ব্যাপার নিয়ে মাঝেমধ্যেই লিজাকে মারধোর করতো আজমীর। পরবর্তীতে লিজা আক্তার খোঁজ নিয়ে জানতে পারে, ঘোষের হাট এলাকার এক প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে আজমীরের পরকীয়ার সম্পর্ক। এই নিয়ে তাদের সংসারে অশান্তির সৃষ্টি হয়। সেই ঝামেলার সূত্র ধরে আজ সকালে আজমীর লিজাকে ধারলো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয়রা আহত লিজা আক্তারকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

ভিডিওটি দেখুন

আহত লিজা আক্তার বলেন, আমার স্বামী আজমীরের সঙ্গে এক নারীর দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক ছিলো, এছাড়াও সে মাদকাসক্ত। বিভিন্ন সময়ে লোকজন নিয়ে এসে বাসায় মাদকের আসর বসায়। এতে বাধা দিলে একাধিকবার শারীরিক নির্যাতন করছে। কিন্তু আমার বাচ্চাদের মুখের দিকে তাকিয়ে তাকে কিছুই বলতে পারি নি। আজ আবার সামান্য ব্যাপার নিয়ে চাপাতি দিয়ে মাথার অনেক জায়গায় আঘাত করে গুরুতর যখম করে। এর বিচার চাই।

এই ব্যাপারে অভিযুক্ত আজমীর ঘরামীকে একাধিক বার কল করলেও তার বক্তব্য পাওয়া যায় নি।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, ভুক্তভোগী লিখিত অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
এই বিভাগের আরো খবর
[X]


সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত বিরহীমন ডক কম ২০১৫-২০২২