ভূত না গাঁজাখোরদের শব্দ, ছাত্রী হোস্টেল ঘিরে রহস্য

Loading...

রাত যত গভীর হয়, ততই বাড়ে ভয়! শিউরে ওঠে এক ভয়ানক শব্দ ভেসে আসে। ততক্ষণে সবার শরীর লোম যায় দাঁড়িয়ে! এরপর সবাই মিলে জড়োসড়ো হয়ে বসে রাত কাটানো;

কেউ কেউ ব্যস্ত দোয়া-কলমায়!
কুমিল্লায় সরকারি মহিলা কলেজের পাশের হোস্টেলে ছাত্রীদের উপরে ভর করে ভূতের আতঙ্ক। প্রতিটি রাতই তাদের কাটছে ভৌতিক আবহে।

ওই হোস্টেলের ছাত্রীরা এরই মধ্যে কলেজের অধ্যক্ষের নিকট এমন দুরবস্থার সমাধান চেয়েছেন। ভূত আতঙ্ক কাটাতে কুমিল্লা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ওই হোস্টেলে হুজুর ডেকে মিলাদ পড়িয়েছেন।

ভিডিওটি দেখুন

জানা যায়, হোস্টেলটির একটি পুরনো পরিত্যক্ত ভবন রয়েছে। ওই ভবনটিতে বৃষ্টি হলে পানি ঢুকে পড়ে। হালকা বাতাস এলেই সবাই আঁতকে ওঠেন। অন্যদিকে, হোস্টেলের পূর্বদিকে রয়েছে বখাটেদের আস্তানা। তারা আশপাশের এলাকায় প্রায়ই প্রকাশ্যে গাঁজা খায়। রাতেও সেখানে তারা আনাগোনা করেন। এসব কারণে হোস্টেলে অদ্ভুত শব্দ শুনতে পাওয়া যায় বলে ধারণা করছেন ওই হোস্টেলের ছাত্রীরা।

ভূতের আতঙ্ক প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করলে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর জামাল নাছের জানান, মেয়েরা ভয় পায়, তাই মিলাদ পড়িয়েছি। পরিত্যক্ত ভবন ও বখাটেদের উৎপাতের বিষয়টি সঠিক নয় বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এত দূর জল গড়ানোর পরও কিছু ছাত্রীর এখনও বদ্ধমূল ধারণা, ওই হোস্টেলে ‘ভূত’ বলে আসলেই কিছু একটা আছে!

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন