‘গডফাদার’ তার ৩০ বছরের উপাধি: আইভী!

Loading...

গত শনিবার নির্বাচনী প্রচারণার সময় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছিলেন, তৈমূর আলম খন্দকার বিএনপির প্রার্থী নন, স্বতন্ত্র প্রার্থীও নন। তিনি গডফাদার শামীম ওসমান এবং সেলিম ওসমানের প্রার্থী। আইভী এই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় শামীম ওসমান বলেন, দু’দিন আগে ভাই ছিলাম এখন কেন গডফাদার হলাম! এ প্রশ্ন আপনারা আইভীকে করেন। তিনি কীভাবে এ কথা বলেছেন। আইভী আমাকে গডফাদার বলে দলীয় সভাপতির প্রতি আঙুল তুলেছেন।

এরপর আজ রোববার (৯ জানুয়ারি) সকালে বন্দর এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণার শুরুতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, আমি তাকে (শামীম ওসমান) এটা (গডফাদার) বলিনি, এটা তার বিগত ত্রিশ বছরের উপাধি। শুধু নারায়ণগঞ্জ নয়, সারা বাংলাদেশ তাকে জানে।

আইভী আরও বলেন, আমি জনগণের জন্য কাজ করেছি। এখানে রাস্তা, ড্রেন হয়েছে, মাঠ হয়েছে। একটা কাজ বাকি সেটা হলো কদম রসূল ব্রিজ। এই প্রজেক্টটিও পাস হয়েছে করোনার কারণে পিছিয়ে গেলেও এবার এটার কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। আগামী তিন থেকে চার মাসের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী এই কদম রসূল ব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন।

তিনি বলেন, কেন্দ্র সবকিছু দেখছে, তারা অবগত আছেন। তারা কী ব্যবস্থা নেবেন সেটা তাদের ব্যাপার। আমার বিষয় আমার জনগণ। আমার জনগণ কখনও কোনো সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ গডফাদার খুনীকে গ্রহণ করেনি নারায়ণগঞ্জে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে। সেটা বার বার প্রমাণিত হয়েছে। কেন্দ্র কেন্দ্রের কাজ করবে, দল দলের কাজ করবে, জনতা জনতার কাজ করবে।

ভিডিওটি দেখুন

তিনি আরও বলেন, ভোটের মাঠ আমার দখলে। সারা নারায়ণগঞ্জের ভোটাররা আমার কথা বলে। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা আমার কথা বলে। আমার বিরুদ্ধে অনেক অপপ্রচার চালানো হয়েছে ধর্মীয় ব্যাপারে উস্কানি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোনটাতেই কাজ হবে না। আমি এ শহরে সাতটা মসজিদ করেছি। আমি শ্মশানের কাজ করেছি মন্দিরের কাজও করেছি। আশা করি ধর্মপ্রান যারা তারা মুসলিম হোক হিন্দু হোক। তারা কোনো অপপ্রচারে কান দেবে না। সাধারণ জনগণ আমার সঙ্গে থাকবে।

‘যেহেতু প্রধানমন্ত্রী নৌকা দিয়েছেন তিনি খোঁজ খবর রাখছেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের টিম এখানে আছে। প্রধানমন্ত্রী জানে নারায়ণগঞ্জের জনগণ আমার সঙ্গে আছে। কে কী বলল সেটা প্রধানমন্ত্রীর কিছু যায় আসে না। একজন জনপ্রতিনিধি সকল জনগণের হয়। আমি যখন পাস করি করার পর বলেছি আমি সকলের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি। কিন্তু আমার পরিচয় আমি আওয়ামী লীগ। আমি বংশ অনুক্রমে আওয়ামী লীগ করি। আমি যখন একটা রাস্তা করি তখন হিসাব করি না আওয়ামী লীগ যাবে না বিএনপি যাবে। আমি দলমতের ঊর্ধ্বে উঠে কাজ করেছি, ভবিষ্যতেও করবো। ’

তিনি বলেন, জনতাই ক্ষমতা, তিনি (শামীম ওসমান) আমার দলের লোক। তিনি সমর্থন দিলে দেবেন, না দিলে না দেবেন। তিনি আমার দলের লোক। তিনি আমাকে অপছন্দ করতেই পারেন। এটা কোনো ব্যাপার না। আমি আমার বড় ভাইকে সম্মান রেখে বহুবার চেষ্টা করেছি বলেছি। আমার কিছু করার নেই, জনগণের রায়ই রায়। তারা ষড়যন্ত্র করবে কিন্তু তা ধ্বংস করে দেবে জনগণ।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন