বিশ্বকাপ বাছাইয়ের মাঝপথে নিয়ম বদলালো আইসিসি!

Loading...

ওমানে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যেখানে বিশ্বকাপের মূলপর্বে জায়গা করে নেওয়ার জন্য লড়াই করছে ৮ দল। ইতিমধ্যেই বাছাইপর্বের বেশ কয়েকটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এরই মধ্যে হঠাৎ করে নিয়ম বদলেছে আইসিসি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরুর আগে আইসিসি জানিয়েছিল, প্রাথমিক পর্ব পেরোতে পারলেই শ্রীলঙ্কা আর বাংলাদেশকে `শীর্ষ বাছাই` বিবেচনা করা হবে। গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন বা রানার্সআপ কোনো বিবেচনা হবে না। ওই নিয়মটা বাতিল করা হলো টুর্নামেন্টের মাঝখানে। নতুন এক বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি জানিয়ে দিয়েছে, প্রাথমিক পর্বে গ্রুপ শীর্ষে থেকে শেষ করা দলটাকেই শীর্ষ বাছাই হিসেবে বিবেচনা করা হবে সুপার টুয়েলভের জন্য।

এক বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি জানিয়েছে, প্রাথমিক পর্ব পেরোতে পারলে শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশ নয়, বরং গ্রুপের শীর্ষে থাকা দলটাকেই টপ সিড বিবেচনা করা হবে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে ১৭ আগস্ট আইসিসির পাঠানো বিবৃতিতে বলা হয়েছিল, প্রাথমিক পর্বের ম্যাচ শেষে পয়েন্ট টেবিলের হিসাব-নিকাশ যেমনই হোক না কেন, যদি ‘এ’ গ্রুপ থেকে শ্রীলঙ্কা আর ‘বি’ গ্রুপ থেকে বাংলাদেশ সুপার টুয়েলভে যায়, সেক্ষেত্রে তাদেরই টপ সিড হিসেবে ধরে নেওয়া হবে। এক্ষেত্রে পয়েন্টের বেশি-কম বিবেচনাতেই আসবে না কোনো।

ভিডিওটি দেখুন

তবে ওই নিয়মটা বাতিল হলো আজ। আইসিসি ফের বিবৃতি পাঠিয়েছে, যেখানে বলা হচ্ছে, ‘এ গ্রুপ আর বি গ্রুপের শীর্ষে থেকে শেষ করা দলটাকেই সুপার টুয়েলভের এ-১ এবং বি-১ বিবেচনা করা হবে। আর, এ-২ আর বি-২ জায়গাটা নেবে প্রাথমিক পর্বে দ্বিতীয় স্থানে থেকে শেষ করা দল।’

সরলীকরণ করলে যা দাঁড়াচ্ছে, তৃতীয় ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে যদি স্কটল্যান্ড জিতে যায়, সেক্ষেত্রে তিন জয় নিয়ে প্রাথমিক পর্বে গ্রুপ ‘বি’-র শীর্ষস্থানটা তাদেরই হবে। সুপার টুয়েলভে তারা গিয়ে পড়বে ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের গ্রুপে। তখন বাংলাদেশ যদি প্রাথমিক পর্ব উতরাতেও পারে, তবে তাদের ঠাঁই হবে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, দক্ষিণ আফ্রিকার গ্রুপে। মাঝে প্রণীত নিয়মে যেটা ছিল, বাংলাদেশ প্রাথমিক পর্ব পার করতে পারলেই গিয়ে পড়বে ভারত-পাকিস্তান-আফগানিস্তানের সঙ্গে।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন