রাতে আইরিন রুমে না যাওয়ায় অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্টের আ’ত্মহ’ত্যা

Loading...

তারা দুজনেই ঢাকার সাভারের একটি বেসরকারি স্কুলের শিক্ষিকা। কিন্তু এই পরিচয়ের আড়ালে মানুষকে ফাঁ’দে ফেলে ব্ল্যা’কমে’ইল করতেন। হাতিয়ে নিতেন নগদ অর্থ। সম্প্রতি সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত একজন সার্জেন্টকে আ’ত্মহ’ত্যা’র প্ররো’চনা দেওয়ার অভিযোগে তাদের গ্রে’ফতা’র করেছে পুলিশ। গ্রে’ফতার’কৃত দুই না’রী হচ্ছেন, নওগাঁর মান্দা উপজেলার বালিচ গ্রামের মাহবুবুর রহমানের স্ত্রী আইরিন ইয়াসমিন লিজা (৩৪) ও ঢাকার সাভার থানার ডেন্ডাবর নতুনপাড়া পলাশবাড়ী গ্রামের ফিরোজের মেয়ে শামীমা আক্তার (২৪)।

রোববার রাতে রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানা পুলিশ ঢাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রে’ফ’তার করে। এদের বিরুদ্ধে মজিবুর রহমান নামে এক ব্যক্তিকে আ’ত্মহ’ত্যার প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। পুলিশ জানায়, মজিবুর রহমান রা’জশা’হীতে প্লট কেনাবেচা এবং প্রাইভেটকার ভাড়া দেওয়ার ব্যব’সা করতেন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি ম’হানগ’রীর উপ’শহরের দুই নম্বর সেক্টরের একটি ভাড়া বা’সা থেকে তার ঝুল’ন্ত লা’শ উদ্ধা’র করে ‘পুলিশ। এ ঘটনায় তার ছেলে থানায় একটি অ’পমৃ’ত্যুর মামলা করেছিলেন। সেই মামলার তদন্ত করতে গিয়ে দুই নারী শিক্ষকের সম্পৃক্ততার বিষয়টি বেরিয়ে আসে। এরপরই তাদের গ্রে’ফতার করা হয়। এদের কাছ থেকে মৃ’ত মজিবুর রহমানের মোবা’ইল ফোনও উ’দ্ধার করা হয়েছে।

ভিডিওটি দেখুন

সোমবার দুপুরে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, শিক্ষকতা পেশার আড়ালে এ দুই নারী মানুষকে ফাঁ’দে ফেলে ব্ল্যা’কমেইল করতেন। জিজ্ঞাসাবাদে আইরিন জানিয়েছেন, মজিবুর রহমানের সঙ্গে তার অ’ন্তর’ঙ্গ সম্পর্ক ছিল। ৬ ফেব্রুয়ারি তারা দুজন স্বেচ্ছায় মজিবুরের বাড়ি এসেছিলেন। রা’তে তারা মজিবুরের পাশের ঘরে শু’য়েছিলেন। তখন মজিবুর রহমান ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে আইরিনকে তার ঘরে ডা’কেন। আইরিন না গেলে ম্যা’সেঞ্জা’রেই তাদের বা’গবি’তণ্ডা হয়। এরপর মজিবুর জানান, রাত ৩টার মধ্যে আইরিন না গেলে তিনি আ’ত্মহ’ত্যা করবেন। তখন আইরিন ম্যাসেঞ্জার এবং এসএমএসের মাধ্যমে মজিবুর রহমানকে ম’রতে’ই বলেন। অভিমানে মজিবুর গলায় ফাঁ’স দিয়ে আ’ত্মহ’ত্যা করেন।

পরে সকালে আইরিন ও শামী’মা তার ঝু’লন্ত লা’শ দেখে বাড়ি থেকে মজি’বুরের মোবাইল ফোন, বাড়ি’র চাবি এবং নগ’দ চার লা’খ টাকা ও কিছু কাগ’জপত্র নিয়ে পা’লিয়ে যান। সং’বাদ সম্মেল’নে আরএমপি কমি’শনার বলেন, এ দুই নারী ব্ল্যা’কমেই’ল চ’ক্রের স’ঙ্গে জড়িত বলে প্রা’থমিকভাবে প্রতী’য়মান হয়েছে। দুজন’কে মজিবু’রের আত্ম’হ’ত্যা’র প্ররো’চনার মামলায় গ্রে’ফতার দেখা’নো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন