বরগুনায় স্কুল সহপাঠীকে জোর করে চু’ম্বন দেয়ার ভিডিও ভাইরাল!!

Loading...

বরগুনার পাথরঘাটা পৌরসভার আনোয়ার হোসেন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর এক শিক্ষার্থীকে জোর করে সহপাঠীর চুম্বন দেয়ার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পরও থানায় মামলা না নেয়ায় আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছে ঐ শিক্ষার্থী! বুধবার স্কুল ছুটির আগেই সহপাঠী বখাটে নাঈম ঐ শিক্ষার্থীর স্কুল ব্যাগ ক্লাস থেকে ছিনিয়ে নিয়ে স্কুল গেটে অপেক্ষা করে। ছুটির ঘন্টা বাজলে শিক্ষার্থী বের হয়ে আসার সময় গেটে নাঈমের কাছে থেকে ব্যাগ আনতে গেলে নাঈম তাকে চুম্বন করে। নাঈমের অপর সহপাঠী সবুজ পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে দৃশ্যটি মোবাইলে ভিডিও ধারন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিলে ভাইরাল হয়ে যায়।

ঐ শিক্ষার্থীর মা রুমা আক্তার জানান,এক প্রতিবেশী ঐদিনই ভিডিও ফুটেজ আমাকে দেখালে, আমি মেয়েকে মারধর করি। মেয়ে আমাকে বিস্তারিত বললে, আমি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে অবহিত করি। প্রধান শিক্ষক নাঈমের মা’কে ছেলেকে নিয়ে আসার জন্য বললেও সে ছেলেকে নিয়ে আসেনী। শিক্ষার্থী, স্হানীয় সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘ দিন নাঈম তাকে উত্তাত্ত্য করে আসছিলো। বিষয়টি তার মা ও মামাকে জানানোর পরও তারা কোন ব্যাবস্হা নেয়নি। থানায় মামলা দিতে গেলেও পুলিশ মামলা না নেয়ায় আত্মহত্যা করা ব্যাতীত কোন উপায় নেই।

ভিডিওটি দেখুন

শিক্ষার্থীর মা’ আরও বলেন, শুক্রবার রাতে মামলা করার জন্য থানায় যাই এবং ভাইরাল হওয়া ভিডিও ওসি সাহেবকে দেখাই। তিনি আমাদের অনেক সময় বসিয়ে রেখে, পরে যোগাযোগ করতে বলে বিদায় দেন। তাদের টাকা আছে বলেই আমরা বিচার পাবনা? এখন সন্মান বাঁচাতে আমাদের আত্মহত্যা করা ছাড়া আর কিছু করার নেই।ঐ শিক্ষার্থীর বাবা পেশায় একজন জেলে। বখাটে নাঈমের বাবা সৌদি প্রবাসী।তার মা, পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের হাজিরখাল এলাকায় ছেলেকে নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকেন। এ ব্যাপারে পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, আবুল বাশার বলেন, আমি ভিডিওটি দেখেছি। তারা মামলা করতে আসেনী বিষয়টি জানাতে এসেছিলেন। আমি ছেলের মা’কে বলেছি, তার ছেলেকে নিয়ে থানায় আসতে।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন