‘তোর বেইমানি ও প’রকীয়ার জন্য আ’ত্মহ’ত্যা করলাম’

Loading...

কুমিল্লায় এমরান হোসেন মুন্না (২৯) নামে এক যুবলীগ নেতা আ’ত্মহ’ত্যা করেছেন। আ’ত্মহ’ত্যার আগে ওই যুবলীগ নেতা হোয়াটসঅ্যাপে তার স্ত্রীকে উদ্দেশ করে ম্যাসেজ লিখেছেন। সেটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

সেখানে মুন্না একটি অংশে তার স্ত্রী সৈয়দা সাজিয়া শারমিন উষাকে (২৮) উদ্দেশ করে লিখেছেন, ‘আর পাঁচটা মানুষের মতো আমার জীবন না, আমি আজ চলে যাইতেছি। মনে রাখিস তোর বেইমানি ও পরকী’য়ার জন্য আ’ত্মহ’ত্যা করলাম আমি…।’

এমরান হোসেন মুন্না কুমিল্লা নগরীর বারপাড়া এলাকার মতিউর রহমানের ছেলে। তিনি কুমিল্লা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ছিলেন।

গত বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বারপাড়া এলাকায় তিনি আ’ত্মহ’ত্যা করেন। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাতে মুন্নার স্ত্রী উষার বিরুদ্ধে আ’ত্মহ’ত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন নিহতের বাবা মতিউর রহমান।

ভিডিওটি দেখুন

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আন্ওয়ারুল আজিম বলেন, ‘পরিবার আ’ত্মহ’ত্যার প্ররোচনার মামলা করেছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি। এটা প্রমাণসাপেক্ষ বিষয়। কেন তিনি আ’ত্মহ’ত্যা করেছেন, তা প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে বিস্তারিত বলা যাবে না।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ৮ বছরের প্রেমের সম্পর্কের পর পরিবারের অমতেই বিয়ে করেন মুন্না ও ঊষা। কিন্তু এক বছর না পার হতে তাদের দাম্পত্য জীবনে নেমে আসে অশান্তি। ঊষা ঢাকায় পড়াশোনা করেন। সেখানে আরেকটি সম্পর্কে জড়ান তিনি। নানাভাবে চেষ্টা করেও স্ত্রীকে পরকীয়া সম্পর্ক থেকে ফেরাতে না পেরে অভিমানে আ’ত্মহ’ত্যা করেন মুন্না।

নিহত মুন্নার পরিবার জানান, মুন্না নিজ শোবার ঘরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলে পড়ে। পরিবারের লোকজন আওয়াজ পেয়ে দরজা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন