জিভ দিয়ে চেটে, পা দিয়ে মাড়িয়ে বিস্কুট প্যাকেটে ভরছে শ্রমিকরা!

Loading...

সকালের হোক কিংবা সন্ধ্যাবেলার চা, এমন অনেকেই আছেন যাঁরা চায়ের সঙ্গে বিস্কুট খেতে ভালবাসেন। অনেকেরই আবার পছন্দ রাস্ক টোস্ট। আর শুধু সপরিবারে নয়, রাস্তার ধারের চায়ের স্টলগুলিতেও অনেকেই চায়ের সঙ্গে রাস্ক টোস্ট খান। অর্থাৎ বলা যায়, এই ধরনের টোস্ট বা রাস্ক সর্বত্রই জনপ্রিয়।

তবে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) এমন একটি ভিডিও ভাইরাল (Viral Video) হয়েছে, যা দেখার পর অনেকেই হয়তো আর টোস্ট খেতে পছন্দ করবেন না। কারণ ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, টোস্ট তৈরির কারখানায় এই বিস্কুট তৈরির সময় একজন শ্রমিক এত নোংরা কাজ করছেন যা দেখলে আপনি অবাক হবেন। দ্বিতীয়বার এই বিস্কুট খাবেন কি না সে ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করতে হবে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কারখানার কিছু শ্রমিক মাটিতে রাখা টোস্ট বিস্কুটগুলি নোংরা পা দিয়ে মাড়াচ্ছে। শুধু তাই নয়, প্যাক করার সময় তাদের সেই টোস্ট জিভ দিয়ে চাটতেও দেখা যায়। আর ভিডিওতে এটা স্পষ্ট যে, কারখানার ওই শ্রমিকরা ইচ্ছাকৃতভাবেই এমন কাজ করেছে। যেহেতু ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে, নেটিজেনরা ওই কারখানা এবং শ্রমিকদের বিরুদ্ধে ক্ষোভও উগরে দিয়েছেন।

ভিডিওটি দেখুন

ভিডিওটি ইনস্টাগ্রামে গিড্ডে নামে এক ইনস্টাগ্রাম ইউজার তাঁর অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন। এ পর্যন্ত প্রায় এক লক্ষের কাছাকাছি মানুষ সেটি দেখে ফেলেছেন। নেটিজেনরা এই ভিডিও দেখে একেবারেই খুশি নন এবং ভিডিওতে থাকা ওই শ্রমিকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি করছেন, কেউ কেউ তাদের গ্রেপ্তার করার দাবিও তুলেছেন। তবে এই প্রথম নয়, গতমাসে অসমের গুয়াহাটির এক রাস্তার ফুচকা বিক্রেতার একটি কীর্তিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল। তাতে দেখা গিয়েছিল, ফুচকার টক জলে প্রস্রাব করছেন ওই বিক্রেতা। যা নিয়েও রীতিমতো বিতর্ক তৈরি হয়েছিল।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, বিক্রেতাকে তার হলুদ অ্যাপ্রনের নিচে একটি মগ ধরে থাকতে। তারপর মগটি বের করে এবং তার মধ্যে থাকা তরল ঢেলে দেয় একটি সাদা বালতিতে যার মধ্যে ছিল ‘ফুচকার জল’। ভিডিওত দাবি করা হয়েছিল, যে মগে করে বালতিতে যে তরল মেসানো হয়েছিল, তা তার প্রস্রাব। অন্য একটি ঘটনায়, মুম্বইয়ের একটি রেল স্টেশনের শৌচাগারের কল থেকে খাবার জল ব্যবহার করার ভিডিও গত বছর জুন মাসে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন