থানায় গিয়ে নিজের বাল্যবিয়ে ঠেকাল সাহসী স্কুলছাত্রী

Loading...

জয়পুরহাটের সদর থানায় হাজির হয়ে নিজের বাল্যবিয়ে নিজেই ঠেকা’ল নবম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী। বুধবার (২৬ মে) জেলার সদর থানায় এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, জয়পুরহাট শহরের স্বনামধন্য একটি স্কুলের নবম-শ্রেণির

শিক্ষার্থী ও তার দুই বান্ধবী বুধবার (২৬ মে) সদর থানায় সশ’রীরে উপস্থিত হয়ে জানায় যে, তাকে বিয়ে দেওয়ার জন্য প্রস্তু’তি নেওয়া হয়েছে। এমনকি জো’রপূ’র্বক বৃহস্পতিবার (২৭ মে) তাকে বিয়ে বন্ধনে আব’দ্ধ করবে তার অভিভাবকরা।

এমন বক্ত’ব্য শুনে তাৎক্ষণিকভাবে জয়পুরহাট সদর থা’নার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর জাহান ওই ছাত্রীর

বাসায় যোগাযোগ করে অভিভাবকদের ডেকে বা’ল্যবি’য়ের কু’ফল সম্ব’ন্ধে অবগত করেন। এ বিষয়গুলো শুনে অভিভাবকরাও বিয়ে না দিয়ে পড়ালেখা করিয়ে মেয়েটির ভবিষ্যৎ জীবন গড়ার প্রত্যয়ে প্র’তি’জ্ঞাব’দ্ধ হয়।

ভিডিওটি দেখুন

এ ব্যাপারে সাহসী ওই স্কুল ছাত্রী বলেন, আমি অনেক আগে থেকেই বা’ল্যবিয়ের কু’ফল স’ম্ব’ন্ধে জেনে এসেছি।

তাই আমি এই কাজটি আমার ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করেই অনেকটা সাহ’সের সঙ্গে সমাধান করলাম। এছাড়াও শহরের কোনো এক জায়গায় বিট পুলিশিং সমাবেশে আমি জানতে পেরেছি যে, বা’ল্যবিয়ে একটি অ’পরা’ধ’।

বাল্যবিয়ে মাধ্যমে একজন মেয়ের জী’বন ‘ধ্বং’স হয়। বাল্যবিয়ে প্র’তিরো’ধে আইন আছে। আর এ রকম তথ্যের

ভিত্তিতেই আমি আমার দুজন বান্ধ’বীকে নিয়ে নিজের বা’ল্যবিয়ে ঠেকাতে নিজেই থা’নায় হাজির হয়ে ওসি সাহেবকে মৌখিক অভিযো’গ দিয়েছি।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন