ওমর সানী-মৌসুমীর ছেলের রেস্তোরাঁ থেকে সিসার সরঞ্জামসহ গ্রে’প্তার ১১!

Loading...

তারকা দম্পতি ওমর সানী-মৌসুমীর ছেলের রেস্তোরাঁ ‘মন্টানা লাউঞ্জ’ থেকে ১১ জনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ মে) গুল’শানের আরএম সেন্টারে থাকা ওই রে’রাঁয় অভিযান চালায় পুলি’শ। এ সময় সিসা সেবনের সরঞ্জা’মসহ তাকে আ’টক করা হয়েছে। তারা সবাই ওই রেস্তো’রাঁর কর্মচারী বলে জানা গেছে গুল’শান থানা সূত্রে।

থানার ডিউটি অফিসার উপপ’রিদর্শক বজলুর রহমান সময় নিউজকে বলেন, ১১ জন কর্মচারীকে আ’টক করা হয়েছে। তারা থা’না হেফাজতে আছে। তাদের বি’রু’দ্ধে মা’মলা হয়েছে। কোর্টে চালানের ব্য’বস্থা করা হচ্ছে।

এদিকে চিত্রনায়ক ওমর সানী দেশীয় গণমাধ্যমকে জানান, ‘মনটানা লা’উঞ্জ আমাদের। সাত থেকে আট মাস ধরে এটি চলছে। সিসার বিজনেস ইলিগ্যাল কোনো বিজনেস না।

গুল’শান-বনানীতে এটি ছাড়াও ৩০টির বেশি লাউঞ্জ রয়েছে। সিসা আমার মেইন বিজনেস না। এটা থেকে আমার রিজিক চলে না। আমি আইনের সঙ্গে শত’ভাগ আছি।’

ভিডিওটি দেখুন

গুলশা’নে কি শুধু একটাই লাউঞ্জ আছে? প্রশ্ন করে ওমর সানী আরও বলেন, ‘নামকরা সিসা লাউ’ঞ্জগুলো পাঁচ-সাত বছর ধরে চলছে। আমার জানা মতে,

বাংলাদেশে ২০০-৩০০ লাউঞ্জ আছে। পুরো বাংলাদেশে আজকের মধ্যেই যদি সব লাউ’ঞ্জ বন্ধ হয়ে থাকে, তাহলে রাষ্ট্রে’র প্রতি আমার কোনো অভিযোগ নেই। কিন্তু পার্টিকু’লারলি আমাকে টার্গেট করে যদি করা হয়ে (অভিযান) থাকে, তাহলে রাষ্ট্রের কাছে বিচার চাইতেই হবে।’

জানা গেছে, ‘মন্টানা লাউঞ্জ’ নামের ওই রেস্তোঁরাটির মালিক তিনজন। তাদের মধ্যে একজন ওমর সানী-মৌসুমীর ছেলে ফারদীন এহসান স্বাধীন। গুলশান ১ ও ২-এর মাঝামাঝি এটির অবস্থান।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন