সুদের টাকার জন্য হা’ত বেঁ’ধে ম’ধ্যযুগীয় কা’য়দায় প্র’বাসীর স্ত্রী’কে নি’র্যা’তন!

Loading...

ভোলার তজুমদ্দিনে সুদের টাকার জন্য সৌদি প্র’বাসির স্ত্রী’কে ম’ধ্যযুগীয় কা’য়দায় দ’ড়ি দি’য়ে হা’ত বেঁ’ধে নি’র্যাতন করার অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় নি’র্যাতিতা প্র’বাসীর স্ত্রী বা’দী হয়ে তজুমদ্দিন থানায় একটি লিখিত অ’ভিযোগ দাখিল করেন।

অ’ভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজে’লার শম্ভুপুর ইউনিয়নে ১ নম্বর ওয়ার্ডের শিবপুর গ্রামের বা’সিন্দা প্র’বাসী রতন মিয়ার স্ত্রী বিবি জহুরা একই এলাকার নজরুলের (নজু) স্ত্রী পাখি বেগমের কাছ থেকে এক বছর পূর্বে ৭০ হাজার টাকা

নেয়। কিছুদিন আগে জহুরা বেগম স্থা’নীয় শাহিন মাস্টার ও মোতাহারের উপস্থিতিতে ৭০ হাজার টাকা ফেরত দেয়। এ সময় পাখি বেগম সুদ বাবদ আরো ৩০ হাজার টাকা দা’বি করেন।

ভিডিওটি দেখুন

জহুরা বেগম জানান স্বা’মী প্রবাসে ক’রোনার কারণে আয় করতে না পারায় তাদের দা’বি”কৃত টাকা প’রিশোধ করতে পারেনি। তারা সুদের টাকা জন্য চা’পাচা’পির একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার সকালে পাখি বেগম তার স্বা’মী নজরুল তার ভাই কবির ও হারুনসহ কয়েকজন মিলে আমাকে দ’ড়ি দিয়ে হা’ত বেঁ’ধে অ’মানবিক নি’র্যাতন করে। প্রতিবেশীরা থানায় সং’বাদ দিলে পুলিশ এসে জহুরা বেগমকে উ’দ্ধার করে।

এ বি’ষয়ে অ’ভিযুক্ত পাখি বেগমের সাথে সরজমিনে গিয়ে কথা বললে সুদের নয় খাজনার লেনদেনের কথা স্বী’কার করে

৩০ হাজার টাকা পাওনা আছেন বলে দা’বি করেন। এ টাকা নিয়ে কথা কা’টাকাটি হলে জহুরাকে ভ’য়ভীতি দেখানোর জন্য দড়ি নিলে জহুরা নি’জেই দ’ড়ি দিয়ে হা’ত বাঁ’ধেন। এ ঘটনায় নি’র্যাতনের শি’কার জহুরা বেগম ৪জনকে অ’ভিযুক্ত করে থানায় একটি লিখিত অ’ভিযোগ দেন।

এ বি’ষয়ে জানতে চাইলে তজুমদ্দিন থানার অফিসার ই’নচার্জ এসএম জিয়াউল হক বলেন, লিখিত অ’ভিযোগ পেলে আ’ইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন