কাতারকে চূড়ান্ত সুখবর দিলো সৌদি আরব, ভাগ্য খুলছে প্রবাসীদের!

Loading...

তিন বছর আগে কাতারের ওপর আরোপ করা অব’রোধ অব’সানের ইঙ্গিত দিয়েছেন সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এর সঙ্গে এক বৈঠকের পর

এই অব’রোধ অব’সানের বিষয়ে অগ্রগতি হয়েছে বলে জানান তিনি। গত বৃহস্পতিবার মার্কিন থিংকট্যাংক ওয়াশিংটন ইনস্টিটিউট ফর নিয়ার ইস্ট পলিসির সঙ্গে এক ভার্চুয়াল আলাপচারিতায় একথা

জানান সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

২০১৭ সালের জুনে উপসাগরীয় দেশ কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব, মিসর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। দোহার বি’রু’দ্ধে স’ন্ত্রা’সবাদ ও মুসলিম ব্রাদারহুডের মতো

বি’রোধী রাজনৈতিক দলকে সমর্থন দেওয়ার অভি’যোগ এনে কাতারের ওপর স্থল, নৌ ও আকাশ পথে অব’রোধ আরোপ করে দেশ চারটি।

অব’রোধ আরোপ ও কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্নের পর তা প্রত্যাহারে কাতারকে ১৩টি শর্ত দেয় দেশ চারটি। এসব শর্তের মধ্যে ছিলো আল জাজিরা মিডিয়া নেটওয়ার্ক বন্ধ, তুর্কি বাহিনী বহিস্কার, ইরানের

ভিডিওটি দেখুন

সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন এবং সংশ্লিষ্ট দেশগুলোকে ক্ষ’তিপূ’রণ। এসব শর্ত মানতে অস্বী’কার করে কাতার জানিয়ে দেয় এসব পদক্ষেপ দোহার সার্বভৌমত্বের ওপর আ’ঘা’ত।

বৃস্পতিবারের ভা’র্চুয়াল আলোচনায় সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান বলেন, ‘আমরা সমাধান অনুসন্ধানে প্র’তিশ্রু’তিব’দ্ধ। কাতারের ভাইদের সঙ্গে যুক্ত হতে আমরা এখনও আশাবাদী আর

আশা করছি তারাও আমাদের সঙ্গে যুক্ত হতে প্র’তিশ্রুতিব’দ্ধ।’ তবে চারটি দেশের বৈধ নি’রাপ’ত্তা

উ’দ্বে’গকেও আমাদের স্বীকার করে নিতে হবে… আর আমরা মনে করি খুব দ্রুত একটি সমাধানের মাধ্যমে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ আছে’, বলেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, কাতারের সঙ্গে চার দেশের বি’রোধ নিরসনে আগেও কয়েক বার উদ্যোগ নেওয়া হলেও তা ব্যর্থ হয়েছে। কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি জানিয়েছেন,

তার দেশ এই সং’কট নি’রসনে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত তবে যে কোনও সমাধানের ক্ষেত্রে তার দেশের সার্বভৌমত্বকে সম্মান জানাতে বলেও বলেও জোর দিয়ে আসছেন তিনি।

নিচের ভিডিওটি মিস করেন নি তো?
লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন