এই দিনটির জন্য আমি অনেকদিন অপেক্ষা করেছি: প্রধানমন্ত্রীকে কাছে পেয়ে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী!

দীর্ঘ অপেক্ষার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জড়িয়ে ধরার সুযোগ পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন ভারতের কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লীতে একটি সৌজন্য সাক্ষাতে এ সুযোগ পেয়ে বেশ আপ্লুত কংগ্রেস সাধারন সম্পাদক। খবর ভারতীয় সংবাদসংস্থা এএনআই-এর।

প্রিয়াঙ্কা রবিবার বিকেলে নিজের এক টুইটবার্তায় জানান, এই দিনটির জন্য আমি অনেকদিন অপেক্ষা করেছি। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে তিনি যতকিছু হারিয়েছেন এবং সব ব্যথা যেভাবে কাটিয়ে উঠেছেন তা সত্যিই প্রেরণাদায়ক। যে অধ্যাবসায় ও সাহসিকতার সাথে তিনি তার বিশ্বাসের জন্য লড়ছেন এবং পরিশ্রম করছেন তার জন্য তিনি সারাজীবন আমার অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন।

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও শেখ হাসিনাকে নিজের দুপাশে রেখে তোলা একটি ছবিও সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশ করেন কংগ্রেস নেত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর সাথে রবিবার দুপুরে নয়াদিল্লীর হোটেল তাজমহলে একটি সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ভারতীয় কংগ্রেসের কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা-নেত্রী। তাদের মধ্যে দেশটির সাবেক রাষ্ট্রপতি সোনিয়া গান্ধী, তার মেয়ে ও দলের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং অন্যতম। আধাঘন্টাব্যাপী চলা এই আলোচনায় দু’দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাথে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা ও বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ফোরামের সম্মেলনে যোগ দিতে গত ৩ অক্টোবর চারদিনের সফরে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার রাতে তার দেশে ফেরার কথা।

স্লোগানরত সমর্থকদের যা বললেন সম্রাট!

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের কাকরাইলের কার্যালয়ে অভিযান শেষ করেছে র‌্যাব। পরে তাকে ওই কার্যালয় থেকে বের করে নিয়ে যায় র‌্যাব। এ সময় বেশকিছু নেতাকর্মী সম্রাটকে ঘিরে স্লোগান দেয়। তারা সম্রাটকে নিয়ে যেতে দেবে না বলে দাবি জানায়।

সম্রাট যখন র‌্যাব পরিবেষ্টিত অবস্থায় বেরিয়ে যান থকন তিনি চিৎকার করে কিছু একটা বলছিলেন বলে নেতাকর্মীরা জানান। সম্রাট হাত উচিয়ে কিছু একটা বলার চেষ্টা করেন।

সেখানে উপস্থিত একজন জানান, সম্রাট তার সমর্থকদের বলেছেন, ‘ষড়যন্ত্র চলছে, হুশিয়ার। রাজনীতিকে ধ্বংস করতে ষড়যন্ত্র চলছে। আপনার হুঁশিয়ার থাকবেন, সাবধান থাকবেন।’

এরপরই তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে তাকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তা জানা যায়নি। সম্রাটকে কোন থানায় হস্তান্তর করা হবে তা র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়নি। এছাড়া তাকে দণ্ড দেয়ায় কারাগারে নেয়া হবে কিনা তাও পরিষ্কার করা হয়নি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে। এদিকে সূত্র জানায়, সম্রাটকে নিয়ে র‌্যাবের একটি দল কেরাণীগঞ্জ কারাগারের দিকে যাচ্ছে।

রোববার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল কাকরাইলে ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারে তালা ভেঙে সম্রাটের কার্যালয়ে ঢুকে অভিযান শুরু করে। সন্ধ্যা ৬ টায় অভিযান শেষ করে সংবাদ সম্মেলন করা হয় র‌্যাবের পক্ষ থেকে।

র‌্যাব জানায়, কার্যালয়টি থেকে অবৈধ অস্ত্র, ছয় রাউন্ড গুলি, ম্যাগাজিন, দুটি ক্যাঙ্গারুর চামড়া, বিদেশি মদ, ১১শ ইয়াবা, নির্যাতন করার ইলেকট্রিক যন্ত্র, চাকু, লাঠি উদ্ধার করা হয়।

বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে সম্রাটকে ৬ মাসের সাজা দিয়েছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। ভ্রাম্যমাণ আদালতটি পরিচালনা করে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম। এছাড়া আরমানকে মদ্যপ অবস্থায় পাওয়ায় তাকেও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

এর আগে ভোর ৫টার দিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রাম থেকে সম্রাটকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার সহযোগী আরমানকেও গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে তাদেরকে যুবলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়।

ইমরানকে ‘ইট’ মারতে যেয়ে ‘পাটকেল’ খেলেন শেবাগ

ইংরেজি বৈশ্বিক ভাষা। সব দেশের মানুষই নিজেদের কাজে এই আন্তর্জাতিক ভাষা ব্যবহার করে। তবে রাষ্ট্র ভেদে ভাষাটির উচ্চারণশৈলী ভিন্ন। উপমহাদেশের মানুষ যেভাবে ইংরেজি বলে, যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ সেভাবে বলে না। আবার যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপিয়ানদের ইংরেজি বাচনভঙ্গি অন্য রকম। আফ্রিকার মানুষদেরও রয়েছে নিজস্ব উচ্চারণ। একই কথা খাটে অস্ট্রেলিয়ার ক্ষেত্রেও। তাই ভাষা এক হলেও এক দেশের মানুষের আরেক দেশের ইংরেজি উচ্চারণ বুঝতে সমস্যা হয়। এই একই সমস্যায় পড়েছেন সাবেক ভারতীয় ওপেনার বীরেন্দর শেবাগ!

ঘটনাটা খুলে বলা যাক। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে ৭৪তম অধিবেশনে ভাষণ দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ভাষণটি যেমন আলোচিত তেমনি সমালোচিতও। সমালোচনাকারীদের মধ্যে সিংহভাগই ভারতীয়, পাকিস্তানের সঙ্গে যাদের বৈরিতা চিরকালীন। এর মধ্যে আছেন ভারতীয় ক্রীড়া তারকারাও। ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী যেমন রয়েছেন, তেমনি বীরেন্দর শেবাগও চুপ করে থাকেননি।

এদিকে, জাতিসংঘের অধিবেশনে ভাষণ দেওয়ার পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন ইমরান। এমএসএনবিসি টিভি চ্যানেলের টক শো ‘মর্নিং জো’-তে গিয়েছিলেন তিনি। অনুষ্ঠানে হাসতে হাসতে যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করেছেন পাকিস্তানকে বিশ্বকাপ জেতানো সাবেক এ অধিনায়ক। বক্তব্যের একপর্যায়ে ইমরান বলেন, ‘এই অর্থহীন যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র যখন আফগানিস্তানে টাকা ঢালছে, চীন তখন প্রথম বিশ্বের অবকাঠামো গড়ে তুলছে। চীনে গিয়ে দেখুন ওদের অবকাঠামো। আমি তো নিউইয়র্কে এসে দেখছি গাড়িগুলো ধাক্কা খাচ্ছে।’

অনুষ্ঠানের সঞ্চালক জো স্কারবরো অবশ্য ইমরানকে ছেড়ে কথা বলেননি। তিনিও ঠাট্টাচ্ছলে জবাব দেন, ‘আপনার কথা শুনে মনে হচ্ছে না আপনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। মনে হচ্ছে ব্রংক্সের (নিউইয়র্কের এক শহর) কোনো ভোটার যুক্তরাষ্ট্রের অবকাঠামো নিয়ে অভিযোগ করছেন।’

এখানেই গোল বেঁধেছে। স্কারবরো যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক, ফলে তাঁর উচ্চারণে আমেরিকান টান থাকবেই। তিনি ‘ভোটার’ শব্দটা এমন করে উচ্চারণ করেছেন, হুট করে মন দিয়ে না শুনলে মনে হবে তিনি ভোটার নয়, ‘ওয়েল্ডার’ বলেছেন, যার অর্থ লোহার ঢালাইকর! ‘ভোটার’ শব্দের সঙ্গে যার অর্থের পার্থক্য আকাশ-পাতাল!

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে ভাষণ দেওয়ার পর থেকে ভারতীয়দের চক্ষুশূল হয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সাবেক ভারতীয় ওপেনার বীরেন্দর শেবাগও তার ব্যতিক্রম নন। তবে ইমরানের সমালোচনা করতে গিয়ে সেদিন একটি ভিডিও টুইট করে নিজেই ভজকট পাকিয়ে ফেলেছেন ভারতের সাবেক এ ওপেনার

ভারতের সাবেক ওপেনার শেবাগ ইমরানের টক শো-র ভিডিও টুইটারে শেয়ার করে মন্তব্য করেন, ‘সঞ্চালক বললেন, আপনার কথা ব্রংক্সের ঢালাইকরের মতো। কিছুদিন আগে জাতিসংঘে জঘন্য বক্তৃতার পর এই লোকটা সম্ভবতা নিজেকে ছোট করার নতুন নতুন পথ বের করছে।’

ব্যস, আর পায় কে! শুরু হয় শেবাগের মুণ্ডুপাত। আল জাজিরা ইংলিশের ডিজিটাল সম্পাদক ফারাস গণি সেই টুইটের জবাবে লেখেন, ‘ওয়েল্ডার? শেবাগ, ভিডিওটা আবার শোনো। বারবার শোনো।’ কলাম লেখক মেহের তাহার বলেন, ‘ভোটারকে ওয়েল্ডার বানাচ্ছে ভারতীয়রা, ২০১৯ সালের সবচেয়ে হাসির খবর এটা। প্রথমত, ভোটারের মতো সহজ একটা শব্দের উচ্চারণ বুঝতে পারল না, দ্বিতীয়ত, ওয়েল্ডার শব্দটাকে একটা গালি হিসেবে ব্যবহার করল। জঘন্য।’

পরে খোদ সেই অনুষ্ঠানের সঞ্চালক জো স্কারবরো টুইট করে বিষয়টা পরিষ্কার করেন, ‘তোমরা কি নিয়ে কথা বলছ? আমি “ভোটার” বলেছি। “ওয়েল্ডার” নয়। স্পষ্ট শোনা যাচ্ছে আমি ব্রংক্সের ভোটার বলেছি। ব্রংক্সের “ওয়েল্ডার” বলার চিন্তাও করব না কখনো!’

স্কারবরোর টুইটের পর পাকিস্তানিরা যেন শেবাগকে নিয়ে ঠাট্টা করার নতুন উপলক্ষ পেয়ে যায়। একজন টুইটার ব্যবহারকারী বলেন, ‘অধিকাংশ ভারতীয়র যুক্তরাষ্ট্রের কথা বলার ধরন বুঝতে সমস্যা হয়। মজার ব্যাপার, ভারতীয়রা একজন অক্সফোর্ড থেকে গ্র্যাজুয়েট করা প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করছে যেখানে তাদের নিজেদের প্রধানমন্ত্রীই এককালে চা বিক্রেতা ছিল।’ আরেক জন লিখেছেন, ‘শব্দটি ভোটার, ওয়েল্ডার নয়। হয় তুমি কানে শোনো না অথবা ওরা যেভাবে ইংলিশ উচ্চারণ করে সেটা বোঝো না। যা বোঝো না সেটা শোনার দরকার নেই, টুইটও করার দরকার নেই। খামোখা নিজেকে লজ্জায় ফেলা।’ আরেকজন বলেন, ‘আত্মসম্মান থাকলে ক্ষমা চাও এখন, আমার মনে হয় যা তোমার একদমই নেই।’

এত শত সমালোচনার পরও শেবাগ সে টুইটটি মুছে দেননি।

বিদেশি টুর্নামেন্টে সুযোগ হতে পারে বাংলাদেশের তরুণ ক্রিকেটারদের

আগামী ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে টি-টেন ক্রিকেট লিগ। দুবাইয়ে হবে ৬ দলের এ টুর্নামেন্ট। আর এই টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মত অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের একটি দল যার নাম বাংলা টাইগার্স।

দুবাইয়ে এরই মধ্যে ১০ ওভারের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট টি-টেন লিগের দুইটি আসর। তৃতীয় আসরেই প্রথমবারের মত যুক্ত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের দলটি। সে দলের হেড কোচের দায়িত্ব পালন করবেন আফতাব আহমেদ।

আগামী ১৬ অক্টোবর হবে টি-টেন লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফট। যেখানে প্রতি দল ১৪ জন ক্রিকেটারকে চুক্তিবদ্ধ করতে পারবে। এর মধ্যে দুইজন আরব আমিরাতের ক্রিকেটার রাখা বাধ্যতামূলক। এছাড়া এ ও বি ক্যাটাগরি থেকে ৩ জন, সি ও ইমার্জিং ক্যাটাগরি থেকে ২ জন এবং অ্যাসোসিয়েট ক্যাটাগরি থেকে ১ জন করে খেলোয়াড় রাখতে হবে।

এই নিলামে কয়েকজন খেলোয়াড় কেনার জন্য চেস্টা করবেন আফতাব। আন্দ্রে ফ্লেচার, থিসারা পেরেরা, কলিন ইনগ্রামদের দিকে নজর রয়েছে দলটির।

তবে ড্রাফটে থাকা যেকোন দেশের, যেকোন ক্রিকেটারকে দলে ভেড়ানোর সুযোগ রয়েছে। সেই কারণে বাংলাদেশ ক্রিকেটের তরুণ প্রতিভাদের এ টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ হতে পারে।

টি-টেন ক্রিকেট লিগে যে ক্রিকেটারদের কিনতে চায় বাংলাদেশের দল

আগামী ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে টি-টেন ক্রিকেট লিগের এবারের আসর। দুবাইয়ে হবে ছয় দলের এ টুর্নামেন্ট। আর এই টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মত অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের একটি দল যার নাম বাংলা টাইগার্স।

দুবাইয়ে এরই মধ্যে ১০ ওভারের ক্রিকেট টুর্নামেন্ট টি-টেন লিগের দুইটি আসর। তৃতীয় আসরেই প্রথমবারের মত যুক্ত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের দলটি। সে দলের হেড কোচের দায়িত্ব পালন করবেন আফতাব আহমেদ।

আগামী ১৬ অক্টোবর হবে টি-টেন লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফট। যেখানে প্রতি দল ১৪ জন ক্রিকেটারকে চুক্তিবদ্ধ করতে পারবে। এর মধ্যে দুইজন আরব আমিরাতের ক্রিকেটার রাখা বাধ্যতামূলক। এছাড়া এ ও বি ক্যাটাগরি থেকে ৩ জন, সি ও ইমার্জিং ক্যাটাগরি থেকে ২ জন এবং অ্যাসোসিয়েট ক্যাটাগরি থেকে ১ জন করে খেলোয়াড় রাখতে হবে।

এই নিলামে কয়েকজন খেলোয়াড় কেনার জন্য চেস্টা করবেন আফতাব। আন্দ্রে ফ্লেচার, থিসারা পেরেরা, কলিন ইনগ্রামদের দিকে নজর রয়েছে দলটির।

ক্রিকেটের নতুন ফর্মেট সুপার ১০০ : জেনে নিন ৮ দলের বিস্তারিত!

আগামী বছর জুলাই মাসে শুরু হতে চলছে ক্রিকেটের নতুন আরেকটি ফর্মেট, ১০০ ক্রিকেট। ক্রিকেটকে আরও উজ্জীবিত করতে এমন উদ্যেগ নিয়েছে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড।

১০০ ক্রিকেট অর্থাৎ ২০২০ সালে নতুন এই টুর্নামেন্টে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ১০০ বল করবে ফিল্ডিং করা দল গুলো। পুরুষ এবং নারী দুই বিভাগেই টুর্নামেন্টটির আয়োজন করা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী এই টুর্নামেন্টে ৮টি দল থাকবে। প্রতিটি দলের একাদশে থাকবে তিনজন বিদেশি খেলোয়াড়।

টুর্নামেন্টটি শুরু হওয়ার এখনো অনেক সময় বাকি থাকলেও ইতিমধ্যে ৮টি ক্লাব তাদের পছন্দের খেলোয়াড় গুলো দলে ভিড়ে নিচ্ছে এখন থেকেই। এবার আসুন এক নজরে দেখে নেয়া যাক দল গুলোর নাম ও বিস্তারিত…

দলঃ বার্মিংহ্যাম ফিনিক্স।

স্কোয়াড-পুরুষঃ মঈন আলী, প্যাট ব্রাউন ও ক্রিস ওকস। নারীঃ ক্রিস্টি গর্ডন ও এমি জনস।
দলঃ লন্ডন স্পিরিট।

স্কোয়াড-পুরুষঃ এউইন মরগান, ররি বার্নস ও ড্যান লরেন্স। নারীঃ হিথার নাইট ও ফ্রেয়া ডেভিস।
দলঃ ম্যানচেস্টার অরিজিনালস।

স্কোয়াড-পুরুষঃ জস বাটলার, সাকিব মাহমুদ ও ম্যাট পার্কিনসন। নারীঃ কেট ক্রস ও সফি এক্লেস্টন।
দলঃ সুপার নর্দার্ন চার্জার্স।

স্কোয়াড-পুরুষঃ বেন স্টোকস, আদিল রশিদ ও ডেভিড উইলি। নারীঃ লরেন উইনফিল্ড ও লিনসে স্মিথ।
দলঃ ওভাল ইনভিনসিবল

স্কোয়াড-পুরুষঃ জেসন রয়, স্যাম কারান ও টম কারান। নারীঃ লরা মার্শ ও ফ্রান উইলসন।
দলঃ সাউদার্ন ব্রেভ।

স্কোয়াড-পুরুষঃ জফরা আর্চার, ক্রিস জর্ডান ও জেমস ভিন্স। নারীঃ আনিয়া শ্রুবসোল ও ড্যানি ওয়েট।
দলঃ ট্রেন্ট রকেট।

স্কোয়াড-পুরুষঃ জো রুট, অ্যালেক্স হেলস ও হ্যারি গার্নি। নারীঃ ন্যাট সিভার ও কাথেরিন ব্রান্ট।
দলঃ ওয়েলস ফায়ার।

স্কোয়াড-পুরুষঃ জনি বেয়ারস্টো, টম ব্যান্টন ও কলিন ইংরাম। নারীঃ ক্যাটি জনস ও ব্রিওনি স্মিথ।

প্রথমবারের মত সম্রাটকে নিয়ে চমকপ্রদ তথ্য দিলেন তার দ্বিতীয় স্ত্রী! (ভিডিওসহ)

বহুল আলোচিত ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট ক্যাসিনো চালিয়ে সেই অর্থ দলের পেছনেই খরচ করতেন বলে জানিয়েছেন তার দ্বিতীয় স্ত্রী শারমিন।

রবিবার (০৬ অক্টোবর) বিকাল ৩টার দিকে মহাখালী ডিওএইচএসের ২৯ নম্বর সড়কে ও ৩৯২ নম্বর বাড়িতে এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় মহাখালীর নিজ বাসায় সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন তিনি।

শারমিন বলেন, ক্যাসিনো চালিয়ে সম্রাট যে অর্থ পেত তা দলের পেছনেই খরচ করতো। মহাখালীর এই বাসায় গত দুই বছরের মধ্যে সে আসেনি। এছাড়া ক্যাসিনোর অর্থ পরিবারকেও দিত না সম্রাট।

এর আগে, ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের ধারাবাহিকতায় রবিবার ভোর ৫টায় কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কুঞ্জশ্রীপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১ এর একটি বিশেষ দল। একই সঙ্গে গ্রেফতার করা হয় তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী এনামুল হক আরমানকেও।

সম্রাটের সঙ্গে গ্রেফতার তার সহযোগী আরমানকেও ঢাকায় আনা হয়েছে। ঢাকায় এনে তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদও শুরু করে র‌্যাব। ভিডিও : যমুনা টিভি।

সাকিবের দিকে তাকিয়ে জেসন হোল্ডার

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ সিপিএলে আজ মাঠে নামবে সাকিব আল হাসান। তার দল বারবাডোস আজ মাঠে নামবে টুর্নামেন্টের সেরা দল গায়না অ্যামাজনের বিপক্ষে। টুর্নামেন্টের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে আজ মাঠে নামবে দলটি।

গায়না এবং বারবাডোসের এই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আজ রাত ৯টায়। এই ম্যাচেই বারবাডোসের হয়ে মাঠে নামবেন সাকিব আল হাসান।

সিপিএলে ১০টি ম্যাচের সবগুলো ম্যাচেই জিতে গ্রুপ পর্ব শেষ করেছে গায়না। অন্যদিকে ১০ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে ছিল সাকিবের বারবাডোস।

গ্রুপ পর্বে সাকিব আল হাসান বারবাডোসের হয়ে তিনটি ম্যাচ খেলেছে। এই তিনটি ম্যাচের মধ্যে একটিতে সাকিব ব্যাট হাতে ঝড়ো ইনিংস খেলেছিল। বাকি আর তিনটি ম্যাচেই বল হাতে ছিলেন দারুণ কার্যকর।

ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে আজ বারবাডোসের এই ম্যাচে আরও একবার সাকিবের জ্বলে উঠার অপেক্ষায় অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। সাকিবের কাছে ফের এমন পারফর্মেন্স দেখতে চান তিনি।

লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন